ইসিতে স্মারকলিপি দিতে চায় ঐক্যফ্রন্ট, বিএনপির ‘না’

0
172

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে নিজেদের দাবি-দাওয়া, অভিযোগ সম্বলিত স্মারকলিপি দিতে চায় নির্বাচনের মাঠে পরাজিত জোট ঐক্যফ্রন্ট। জোটের বড় দল বিএনপির নেতারা বলছেন, এখন স্মারকলিপি দিয়ে কিছু হবে না, যা করার নির্বাচনের আগে করতে হতো। এমন প্রেক্ষাপটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট বলছে, তবে কী বিএনপি ফলাফল মেনে নিতে চায়? যদিও এ প্রশ্নের কোন সদুত্তর আসেনি বিএনপির পক্ষ থেকে। তবে গণফোরামের নির্বাচিত দু’জন প্রার্থীকে শপথ নিতে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত দিয়েছে দলীয় প্রধান ড. কামাল। এমন পরিস্থিতিতে জোটের সিদ্ধান্ত নিয়ে শুরু হয়েছে ধোঁয়াশা। বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না দাবি করে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের পদত্যাগ চেয়েছিল ঐক্যফ্রন্ট। সেই নির্বাচন কমিশনের কাছেই তারা আবার নির্দলীয় সরকারের অধীনে পুনর্নির্বাচন দাবি উত্থাপন করতে স্মারকলিপি দিতে চাইছে। এ ব্যাপারে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ বলেন, এখন স্মারকলিপি দিয়ে কিছুই হবে না। নির্বাচনের কয়েক দিন আগে মওদুদ আহমদ ও ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলুর একটি ফোনালাপ ফাঁস ঘিরে বেশ আলোচনার সৃষ্টি হয়। সেখানে তাদের আলোচনায় ছিল- সব প্রার্থীকে ঢাকায় ডেকে কোন কর্মসূচি দেওয়া। এখন নির্বাচনের পর সবাইকে ঢাকায় ডেকে কমিশনে নেওয়া প্রসঙ্গে মওদুদ বলেন, ‘এ ধরণের কর্মসূচি নির্বাচনের আগেই করতে হতো। এখন করলে ফলপ্রসূ কিছু হবে না।’ এদিকে ড. কামালের এই স্মারকলিপি দেয়াকে সহজ করে নিতে পারছে না বিএনপি। তারা বলছেন, কেবল বিএনপির আইওয়াশ করার জন্য এমন পদক্ষেপ নিচ্ছে ঐক্যফ্রন্ট। এদিকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ৭টি আসনে জয় পেয়েছে প্রার্থীরা। তাদের মধ্যে বিএনপির ৫টি এবং গণফোরামের ২টি আসন। গুঞ্জন উঠেছে, গণফোরামের ওই দুইজন শপথ নিতে প্রস্তুত। প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েও গেছে। এখন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসার অপেক্ষায় দুই প্রার্থী। সিলেট-২ আসনে গণফোরাম থেকে জয়ী হওয়া দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোকাব্বির খান জানান, প্রাথমিক সিদ্ধান্ত পেয়েছেন তিনি এখন তিনি দলের চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছেন। ৩১ ডিসেম্বর সংবাদ সম্মেলনে জয়ী প্রার্থীদের শপথের প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সব ফলাফলই তারা প্রত্যাখ্যান করেছেন। কিন্তু কামাল হোসেন জানান, বিষয়টি বিবেচনাধীন। ঐক্যফ্রন্টের এক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আইনজীবীসহ অনেকের পরামর্শই হচ্ছে এই ৭ জনের শপথ নিয়ে সংসদে যাওয়া উচিত। পাশাপাশি বাইরের আন্দোলনও থাকবে। তবে বিএনপি নেতা মওদুদ আহমদ বলেন, ফল প্রত্যাখ্যান করে শপথ নিতে যাওয়াটা সাংঘর্ষিক সিদ্ধান্ত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here