22.7 C
Pabna, Bangladesh
Friday, 5 March 2021

Daily Archives: 19 May 2019

বাংলাদেশের ইসলামের প্রচার ও প্রসারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি, একটি নতুন মানচিত্রের অমর রূপকার। বঙ্গবন্ধু ছিলেন উদারচেতনার অধিকারী একজন খাঁটি মুসলমান। বঙ্গবন্ধুর পূর্ব পুরুষ শেখ আউয়াল ইসলাম প্রচারের উদ্দেশ্যে হযরত বায়জিদ বোস্তামী (রা.) এর শিষ্যত্বগ্রহণ করে তাঁর  সাথে ভারতীয় উপমহাদেশে আসেন প্রথম। পরবর্তীতে তারই উত্তরপুরুষেরা বর্তমান গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ায় বসতি স্থাপনকরেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু হচ্ছেন ইসলাম প্রচারক শেখ আউয়ালের সপ্তম বংশধর। বঙ্গবন্ধুর পিতা শেখ লুৎফর রহমান ছিলেন একজন সুফিচরিত্রের অধিকারী অন্যতম ধর্মপ্রাণ মুসলমান ও ইসলামের প্রচার ও প্রসারের অন্যতম একজন ধারক।বঙ্গবন্ধু কখনও ইসলামকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করেননি। বাংলাদেশকে সকল ধর্মের সকল মানুষের জন্য শান্তির দেশ হিসেবে গড়ে তুলতেতিনি ছিলেন সদা সচেষ্ট। তিনি তাঁর সংক্ষিপ্ত শাসনামলে ইসলামের প্রচার ও প্রসারে যে অসামান্য অবদান রেখেছেন তা মুসলিম বিশ্বে বিরল। তিনিযেমন একটি স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্রের মহান স্থপতি, তেমনি বাংলাদেশে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় ইসলামের প্রচার-প্রসারের স্থপতিও তিনি।ইসলাম প্রচার-প্রসারে বঙ্গবন্ধুর অবদানসমূহের একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণ নিচে উপস্থাপন করা হলো: ১) ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা: স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু বাংলাদশের রাষ্ট্রপ্রধানের দায়িত্ব নিয়ে এক দিকে যেমন যুদ্ধ-বিদ্ধস্ত দেশকে পুনর্গঠনেমনোযোগ দিলেন অন্য দিকে সহী ইসলাম প্রচার, প্রসার এবং গবেষণার জন্য সরকারিভাবে 'ইসলামিক ফাউন্ডেশন' প্রতিষ্ঠা করেন। বঙ্গবন্ধু প্রতিষ্ঠিতইসলামিক ফাউন্ডেশন এখন সরকারি অর্থে পরিচালিত অন্যতম একটি বৃহৎ ইসলামিক সংস্থা। ১৯৭৫ সালের ২৮ মার্চ প্রতিষ্ঠিত ইসলামিকফাউন্ডেশনের প্রকাশনা বর্তমানে আন্তর্জাতিক ভাবেও স্বীকৃতি পাচ্ছে।২) মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড পুনর্গঠন: ইসলামী আকিদাভিত্তিক জীবন গঠন ও দ্বীনি শিক্ষা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড পুনর্গঠনকরেন। বঙ্গবন্ধুই প্রথম মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডকে স্বায়ত্তশাসন দিয়ে এর নাম রাখেন ‘বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড।’ জাগতিক শিক্ষার সাথে ধর্মীয়শিক্ষার সমন্বয় সাধনের মাধ্যমে ধর্মীয় শিক্ষার আধুনিকীকরণের পাশাপাশি মাদরাসা শিক্ষার্থীদের জন্য উচ্চতর শিক্ষার দ্বার উন্মুক্ত করা এবংমাদরাসা শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সরকারি চাকরির নিশ্চয়তা ও যথাযথ মর্যাদা নিশ্চিত করেছিলেন। ৩) টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমার স্থান বরাদ্দ: বিশ্ব ইজতেমা শান্তিপূর্ণভাবে পালন  করার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সর্বপ্রথম স্থায়ী বন্দোবস্তহিসেবে তুরাগ নদীর তীরবর্তী জায়গাটি প্রদান করেন। সে হতে অদ্যাবধি তাবলিগ জামাত ওই স্থানে বিশ্ব ইজতেমা পালন করে আসছে। টঙ্গীতে বঙ্গবন্ধুএই স্থান বরাদ্দের বদৌলতেই বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের লক্ষ লক্ষ  মুসলিম এখানে সমবেত হয়ে ইসলামের  দ্বিতীয় বৃহৎ সম্মেলন করে যাচ্ছেন। এছাড়াতাবলিগ জামাতের কেন্দ্র নামে পরিচিত কাকরাইল মসজিদের সম্প্রসারণের দরকার হলে তখন রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে বঙ্গবন্ধু নির্দ্বিধায় কাকরাইলমসজিদকে সরকারি জায়গা বরাদ্দ দিয়ে এর সম্প্রসারণের ব্যবস্থা করে দেন। ৪) হজ পালনের জন্য সরকারি অনুদানের ব্যবস্থা: পাকিস্তান আমলে হজযাত্রীদের জন্য কোনো সরকারি অনুদানের ব্যবস্থা ছিল না। বঙ্গবন্ধুস্বাধীনতা-উত্তর বাংলাদেশে প্রথম হজযাত্রীদের জন্য সরকারি তহবিল থেকে অনুদানের ব্যবস্থা করেন। ফলে হজ পালনকারীদের আর্থিক সাশ্রয় হয়।বঙ্গবন্ধু শাহাদাত লাভের পর যারা ক্ষমতায় ছিলেন, তারা কথায় কথায় নিজেদের ইসলামের সেবক দাবি করলেও তাদের আমলে সরকারি অনুদানবন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। ৫) সীরাত মজলিশ প্রতিষ্ঠা: বঙ্গবন্ধুর দিকনির্দেশনা ও পৃষ্ঠপোষকতায় ঢাকায় সীরাত মজলিশ নামে একটি প্রতিষ্ঠান গঠন করা হয়। সীরাতমজলিশ ১৯৭৩ ও ১৯৭৪ সালে রবিউল আউয়াল মাসে স্বাধীন বাংলাদেশে প্রথম বৃহত্তর আঙ্গিকে ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) মাহফিল উদযাপনের কর্মসূচিগ্রহণ করে। সরকারপ্রধান হিসেবে বঙ্গবন্ধু বায়তুল মোকাররম মসজিদ চত্বরে মাহফিলের শুভ উদ্বোধন করেছিলেন। ৬) বেতার-টেলিভিশনে ধর্মীয় অনুষ্ঠান প্রচার: বঙ্গবন্ধুর শাসনামলে তারই নির্দেশে সর্বপ্রথম বেতার ও টেলিভিশনে গুরুত্বের সঙ্গে পবিত্রকোরআন ও তার তাফসীর এবং অন্যান্য ধর্মীয় অনুষ্ঠান প্রচার করার সুব্যবস্থা করেন। ৭) ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ), শবেকদর, শবেবরাত উপলক্ষ্যে সরকারি ছুটি ঘোষণা: ধর্মীয় দিবসসমূহ যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের উদ্দেশ্যেবঙ্গবন্ধুই প্রথম বাংলাদেশে সরকারি ছুটি ঘোষণা করেন এবং উল্লিখিত দিবসসমূহের পবিত্রতা রক্ষার্থে সিনেমা হল বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেন। ৮) মদ জুয়া নিষিদ্ধকরণ ও শাস্তির বিধান: ইসলামে মদ জুয়া সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ। ইসলামের এই বিধানের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে স্বাধীনতারপর বঙ্গবন্ধু সরকারীভাবে আইন করে এসব অপকর্ম নিষিদ্ধ করেছিলেন এবং শাস্তির বিধান জারি করেছিলেন। ৯) রাশিয়াতে প্রথম তাবলীগ জামাত প্রেরণের ব্যবস্থা: রাশিয়া তথা সোভিয়েত ইউনিয়নে বিদেশ থেকে কেউ গিয়ে ইসলাম প্রচারের সুযোগপেত না। কিন্তু বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের সাথে রাশিয়ার সুসম্পর্কের সুযোগ নিয়ে ইসলাম প্রচারের জন্য সর্বপ্রথম তাবলীগ জামাতের একটি দল রাশিয়াতেপ্রেরণের ব্যবস্থা করেন।এছাড়া জাতির জনক বঙ্গবন্ধু মুসলিম বিশ্বের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার উদ্দেশ্যে ১৯৭৪ সালে লাহোরে অনুষ্ঠিত ইসলামী সম্মেলন সংস্থার (ওআইসি)অধিবেশনে যোগদান করেন এবং আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশকে এই সংস্থার অন্তর্ভুক্ত করার মধ্য দিয়েই বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর মাঝে বাংলাদেশের স্থানকরে দেন। ইসলামের প্রচার ও প্রসারের ক্ষেত্রে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের যুগান্তকারী অবদানের কথা বাংলাদেশের ইতিহাসেচিরদিন স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। 1

সারা দেশে ন্যায্য মূল্যে টিসিবি পণ্য বিক্রিতে ব্যাপক সাড়া

রমজান মাসকে কেন্দ্র করে সারা দেশে টিসিবির নানা রকম প্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রিতে ব্যাপক সাড়া মিলছে। ন্যায্যমূল্যে ভেজালমুক্ত নানা রকম পণ্য ক্রয় করতে ক্রেতারা ভিড় জমাচ্ছেন...

চাল সংগ্রহ অভিযান উদ্বোধন আটঘরিয়ায়

আটঘরিয়া প্রতিনিধি : পাবনার আটঘরিয়া উপজেলায় সরকারি ভাবে চাল সংগ্রহ অভিযান উদ্ধোধন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার বেলা পৌনে দুইটার দিকে আটঘরিয়া খাদ্য গুদাম প্রাঙ্গণে...

পাবনায় শিক্ষককে মারধর ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

শহর প্রতিনিধি: পাবনার সরকারি শহীদ বুলবুল কলেজের প্রভাষক মাসুদুর রহমানকে মারধরের ঘটনায় বুলবুল কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শামসুদ্দিন জুন্নুনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার সকালে...

বিশ্ব টেলিযোগাযোগ দিবস পালিত পাবনায়

  এস এম আলম: পাবনায় বিশ্ব টেলিযোগাযোগ দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল সকালে এ উপলক্ষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে একটি র‌্যালী বের হয়। র‌্যালিটি পাবনা শহরের...

পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার: পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে । গতকাল শনিবার জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এ সভাটি অনুষ্ঠিত...

পাবনায় ঝড় : গাছ চাপা পরে গৃহবধুর মৃত্যু স্থানীয়রাই সরালো রেললাইনে পড়ে থাকা...

পিপ : পাবনার চাটমোহরে কালবৈশাখী ঝড়ের মধ্যে আম কুড়াতে গিয়ে গাছের চাপায় মর্জিনা খাতুন (২৩) নামে এক গৃহবধূ নিহত হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় এ দূর্ঘটনা...

রমজান উপলক্ষে গ্রীনসিটিতে বিশেষ ছাড়ে প্লট ও ফ্যাট বরাদ্দ : ক্রেতাদের ভিঁড়

সংবাদদাতা: পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে মাহাতাব বিশ্বাস গ্রীনসিটিতে বিশেষ ছাড়ে প্লট ও ফ্যাট বরাদ্দ চলছে। এতে করে ক্রেতারাও আগ্রহ দেখাচ্ছেন। বিক্রি হচ্ছে প্লট, ফাট...

সেপটিক ট্যাংকে পড়ে নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু চাটমোহরে

চাটমোহর প্রতিনিধি: পাবনার চাটমোহরে সেপটিক ট্যাংকে পড়ে ফরিদ হোসেন (২৩) নামে এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে পৌর শহরের আফ্রাতপাড়া মহল্লায়...

ঈশ্বরদীতে দুইশত পিচ ইয়াবাসহ ২ মাদক ব্যাবসায়ী আটক

পিপ : ঈশ্বরদীর রূপপুর মোড়ে শুক্রবার গভীর রাতে পুলিশী অভিযানে ইয়াবাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক হয়েছে। আটককৃতরা আন্তঃজেলা মাদক চক্রের সদস্য বলে ঈশ্বরদী থানা...

জনপ্রিয়

পাবনায় উৎসবমুখর পরিবেশে বই উৎসব পালিত

শহর প্রতিনিধি: বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় সাত লাখ শিক্ষার্থীর হাতে নতুন বই তুলে দেয়ার মধ্য দিয়ে পাবনায় উৎসবমুখর পরিবেশে পালিত হচ্ছে বই উৎসব। কাল...