সাবেক ভূমিমন্ত্রী ডিলু চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন লক্ষী কুন্ডায়

0
51

দোলন খন্দকার : সাবেক ভূমিমন্ত্রী, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, পাবনা-৪ আসনের (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) সংসদ সদস্য, মুক্তিযোদ্ধা ও ভাষাসৈনিক শামসুর রহমান শরীফ ডিলু চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন লক্ষী কুন্ডায়।
বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে ঢাকা ইউনাইটেড হাসপাতালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর।
পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স এমপি শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন- রাষ্ট্রপ্রতি এ্যাড. আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পীকার শিরিন চেšধুরী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগ, এ্যাড. শামসুল হক টুকু এমপি, গোলাম ফারুক প্রিন্স এমপি, মো. মকবুল হোসেন এমপি, আহম্দে ফিরোজ কবির এমপি, নাদিরা ইয়াসমিন জলি এমপি,পাবনা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রেজাউল রহিম লাল, পাবনা জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ, পাবনা পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম, পাবনা প্রেস ক্লাব, পাবনা জেলা যুবলীগ, পাবনা জেলা ছাত্রলীগ, স্বাধিনতা শিক্ষক পরিষদ পাবনা জেলা শাখা, সেক্টর্স কমান্ডার ফোরাম মুক্তিযুদ্ধ ৭১ পাবনা জেলা শাখা, ড্রামা সার্কেল, পাবনা সংবাদপত্র পরিষদ, পাবনা আইনজীবি সমিতি, পাবনা আইনজীবি সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. আব্দুল আহাদ বাবুসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, সংগঠন ও ব্যাক্তি।
পারিবারিক সুত্রে জানায়ায়- তিনি বেশকিছুদিন ধরে ওই হাসপাতালের আইসিইউতে ছিলেন। তিনি ক্যান্সার, কিডনী সহ বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন। তিনি স্ত্রী, ৪ ছেলে ও ৫ মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। শামসুর রহমান শরীফ ডিলু পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের দুই সভাপতি ও পরপর পাঁচবারেরর নির্বাচিত সংসদ সদস্য ছিলেন।
মরহুম লুৎফর রহমান ছেলে শামসুর রহমান শরীফের গ্রামের বাড়ি ঈশ্বরদী উপজেলার লক্ষীকুন্ডা গ্রামে । বসবাস করতে ঈশ্বরদী পৌর শহরের আলীবর্দি সড়কের বাসভবনে। ১৯৪০ সালের ১০ মার্চ তিনি সদর উপজেলার শানিকদিয়ার গ্রামে নানা বাড়ীতে জন্ম গ্রহন করেন। ১৯৫৭ সালে পাবনা জেলা স্কুল থেকে মেট্রিক, ১৯৬০ সালে ইন্টারমিডিয়েট এবং ১৯৬২ সালে ডিগ্রী পাশ করেন। ১৯৯৬,২০০১, ২০০৮,২০১৪,২০১৮ সালে তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৪ সালের ১২ জানুয়ারি তাকে ভুমি মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়।
তার প্রথম নামাজের জানাজা বৃহস্পতিবার আসরের নামাজের পর ঈশ্বরদী পৌর শহরের আলীবর্দী সডকের নিজ বাসভবনের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই এই মুক্তিযোদ্ধাকে গার্ড অব অনার (রাষ্ট্রীয় সম্মান) দেওয়া হয়।
প্রথম জানাজা শেষে তাঁর মরদেহ তাঁর পৈতৃক নিবাস ঈশ্বরদী উপজেলার লক্ষীকুন্ডা ইউনিয়নে নেয়া হয়। এরপর কৈকুন্ডা কেন্দ্রীয় ঈদগাহে দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয় বিকেলে। সেখানে জানাজা শেষে তাঁর মা-বাবার কবরের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয় বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী শামসুর রহমান শরীফ ডিলু কে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here