সরকারি বরাদ্দ বিতরণে গাফিলতি হলে কঠোর ব্যবস্থা -কবীর মাহমুদ

0
44

স্টাফ রিপোর্টার : জেলা প্রশাসক বলেছেন- এ পর্যন্ত পাবনায় কোন করোনা রোগীর সন্ধান মেলেনি। ৩৬৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ৪ শতাধিক ব্যাক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে অবমুক্ত হয়েছে। পাবনায় চিকিৎসা সামগ্রী যথেষ্ঠ মজুত আছে, বেশী সংখ্যক রোগীর জন্য হাসপাতাল প্রস্তুত আছে। ৬৮০ টন খাদ্য সাহায্য পেয়েছি এবং ২৭ লক্ষ টাকা পাওয়া গিয়েছে যা বিতরণ করা হচ্ছে। ২৪ ঘন্টা পাবনা বাসীর সাথে আছি। এটি একটি কঠিন যুদ্ধ পাবনা বাসীর সাথে নিয়ে করছি। সরকারি বরাদ্দ বিতরণে কোন প্রকার গাফিলতি হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। আমি মানবিক নয় দায়িত্ববান জেলা প্রশাসক হতে চাই।
তিনি আরো বলেন- বাচ্চাদের সহযোগীতার জন্য প্রস্তুতি রয়েছে। বিসিএস প্রশাসেনের ৩৫ জনের বৈশাখী ভাতা দুর্যোগে সাহায়্য করা হবে এ ছাড়াও জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা তহবিল গঠন করা হবে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা কর্মচারীদের একদিনের বেতন দিয়ে শুরু হবে এই তহবিল। রবি মঙ্গল বৃহস্পতিবার ১০ টাকা দামে চাল বিক্রি করা হবে।
তিনি আরো জানান- মধ্যবিত্ত ও নি¤œমধ্যবিত্তদেও মধ্যে যারা এই দুর্যোগের কারণে আর্থিক সংকটে রয়েছেন অথচ প্রকাশ করতে পারছেন না বা কোন সাহায্য নিতে কষ্ঠ পাচ্ছেন তাদের জন্য ব্যবস্থা নিয়ে প্রয়োজনে তাদের নাম গোপন রেখে বাড়ীতে সাহায্য পৌছে দেয়া হবে। মধ্যবিত্ত ও নি¤œমধ্যবিত্ত ব্যাক্তিরা নিম্মের মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করলে যাচাই করে সহযোগীতা করা হবে।
মোবাইল নম্বর সমূহ পাবনা সদর-০১৭৬২ ৬২১০১৩, বেড়া ১০৭৩৭ ৩৬১৪৪৪, সুজানগর ০১৭১০ ৫২৬০২৩, ফরিদপুর ০১৭০০৭১৬৯৮৮, চাটমোহর ০১৭৬২ ৬২১০১৪, ঈশ্বরদী ০১৭১৭ ১৬২৬৩৭, আটঘরিয় ০১৭৫৫ ২৭১৪১৮, ভাঙ্গুড়া ০১৪০৩ ৩৯৪৪৮৫, সাথিঁয়া ০১৭৬০ ২০৩৩৫৩।
সবাইকে আতঙ্ক না হয়ে সচেতন হতে হবে। প্রয়োজন ছাড়া বাড়ীর বাইরে বের না হওয়ার অনুরোধ জানানো হয়।
শনিবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে করোনা বিষয়ে এক প্রেস ব্রিফিং এ জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ এ তথ্য জানান।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শাহেদ পারভেজ, পাবনা সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি আব্দুল মতীন খান, পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান, সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদ প্রমূখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here